শনিবার | ১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

অন্যের স্ত্রী ‘ভাগিয়ে’ এনে পুলিশ সদস্য ক্লোজড

প্রকাশিত : জানুয়ারি ৭, ২০২১




সারাদেশ ডেস্ক : অন্যের স্ত্রীকে সন্তানসহ ভাগিয়ে নিয়ে সংসার করার অভিযোগে যশোরে আব্দুর রহমান কণক নামে এক পুলিশ সদস্যকে ক্লোজড করা হয়েছে। আবদুর রহমান যশোর সদর উপজেলার তালবাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত ছিলেন। ওই নারীর স্বামীর অভিযোগের পর গত বুধবার আবদুর রহমানকে ক্লোজড করেন পুলিশ সুপার।

ভাগিয়ে আনা নারী রংপুর মহানগরের তাজহাট এলাকার বিপ্লবের স্ত্রী স্বপ্না খাতুন।

জানা গেছে, স্বপ্না খাতুনের সঙ্গে বিপ্লবের ১২ বছর আগে বিয়ে হয়। তাদের দুই সন্তান রয়েছে। স্বপ্না খাতুনের সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সম্পর্ক হয় পুলিশ কনস্টেবল আবদুর রহমানের। গত ২৫ ডিসেম্বর স্বপ্না খাতুন চার বছর বয়সী কন্যাকে নিয়ে আবদুর রহমান কণকের সঙ্গে পালিয়ে যায়। এরপর কণকের কর্মস্থল যশোরে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ভাড়া বাসায় বসবাস শুরু করে। একপর্যায়ে তাদের অবস্থান জানতে পেরে গত ৪ জানুয়ারি রংপুরের তাজহাট থানায় অভিযোগ দেন বিপ্লব। কিন্তু থানা মামলা গ্রহণ করেনি। তারা বলেছে, তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর আব্দুর রহমান কণককে পুলিশ লাইনসে ক্লোজড করেছে যশোর পুলিশ বিভাগ।

যশোরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আশরাফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, বুধবার কনস্টেবল আবদুর রহমান কণককে ক্লোজড করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তা ছাড়া এটি পারিবারিক ঘটনা। এ ঘটনায় আদালতে মামলা হলে বাদী-বিবাদী তারা ব্যক্তিগত পর্যায়ে মোকাবেলা করবেন।

পুলিশ কনস্টেবল আবদুর রহমান কণক সাংবাদিকদের বলেন, মোবাইল ফোনে পরিচয় থেকেই আমাদের সম্পর্ক হয়। আমি তাকে ভাগিয়ে কিংবা অপহরণ করি নাই। স্বপ্না স্বেচ্ছায় আমার কাছে চলে এসেছে। স্বপ্না বলেছে সে তার স্বামীকে ডিভোর্স দিয়েই এসেছে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর