মঙ্গলবার | ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

আমিন শব্দের অর্থ ও এর ফজিলত

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২




ধর্ম ডেস্ক ॥ জামাআতে নামাজ পড়ার সময় ইমাম যখন সুরা ফাতেহা শেষ করবেন তখন মুসল্লিদের ‘আমিন’ বলা সুন্নাত। এটি হাদিসে নির্দেশিত অন্যতম আমলও বটে। কেননা নামাজের জামাআতে ইমামের সুরা ফাতেহা পড়া শেষ হলে মুসল্লিদের মতো ফেরেশতারাও ‘আমিন’ বলেন।

এ সময় যে ব্যক্তি নামাজের জামাআতে সুরা ফাতেহা শেষ হলে সুন্নাত আদায় করতে গিয়ে ‘আমিন’ বলবে, আর যদি মুসল্লির ‘আমিন’ বলা ফেরেশতাদের ‘আমিন’ বলার সঙ্গে মিলে যায় তবে তার আগের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেয়া হয়। একাধিক হাদিস থেকে গোনাহ মাফের বিষয়টি প্রমাণিত।

আমিন এর অর্থ হলো—হে আল্লাহ কবুল করুন। আল্লাহর কাছে যখনই দোয়া করি তখনই কবুলের জন্য আমরা আমিন বলে থাকি। এটি আল্লাহর কাছে কবুলের জন্য দোয়া। তাই যখনই আল্লাহর কাছে কিছুর জন্য দোয়া চাইবেন তখন কবুলের জন্য আমিন বলবেন।

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‌’ইমাম ‘غَيرِ المَغضوُبِ عَلَيهِم وَلاَ الضّاَلّين’ পড়লে তোমরা ‘আমিন’ বলো। কেননা, যার এ (আমিন) বলা মালাক (ফেরেশতা) গণের (আমিন) বলার সঙ্গে একই সময় হয়; তার আগের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেয়া হয়।’ (বুখারি, মুসলিম)

ইমামের সুরা ফাতিহা পড়া শেষ হওয়ার পর ‘আমিন’ বলার মাধ্যমে নিজেদের গোনাহ থেকে মুক্তি লাভের তাওফিক দিন। হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দিন। আমিন।

আজকের সর্বশেষ সব খবর