বৃহস্পতিবার | ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

ঈদে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে পর্যটকদের ঢল

প্রকাশিত : মে ৫, ২০২২




নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হবিগঞ্জের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান ও চা বাগানগুলো এখন দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর। ঈদের ছুটিতে দেশের বিভিন্ন জেলার ভ্রমণরপিপাসুরা পরিবার নিয়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করতে ভিড় জমিয়েছেন এসব স্পটে। হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে পর্যটকদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। সবার মধ্যে খুশির আমেজ।

সবুজের ছায়া ঢাকা পাখির কোলাহল মুখর এ উদ্যানটি চোখে না দেখলে মনেই হবে না যান্ত্রিক সভ্যতার বাইরে অন্য একটি জগৎ রয়েছে। যেখানে স্রষ্টার সৃষ্টির প্রকৃতিক সৌন্দর্য্যকে অবলোকন করা যায় আপন মনে। এই সৌন্দর্য্যেকে দেখতে ঈদের দিন থেকে দ্বিতীয় দিন পর্যন্ত শতশত পর্যটক অবস্থান করেছে। পর্যটকদের খাবারের জন্য রয়েছে ৩ টি হোটেল যার যার চাহিদা মত খাবার খাওয়া যায়।

উদ্যানের ভিতরে রয়েছে একটি ওয়াচ টাওয়ার। এখান থেকে উদ্যানের প্রকৃতিক সৌন্দর্য্য দেখা যায়। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড় রয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, উদ্যানের পাশাপাশি চা বাগানের টিলার আঁকাবাঁকা পিচ্ছিল রাস্তায় পর্যটকেরা ঘোরাফেরা করছেন। কেউ কেউ দল বেঁধে এক টিলা থেকে অন্য টিলায় গিয়ে ফটোসেশন করছেন। জাতীয় উদ্যানে প্রজাপতি বাগানে সব চেয়ে বেশি তরুণ তরুণীদের ফটোসেশন দেখা গেছে।

উদ্যানে ভিতরে প্রবেশ মুল্য ২০টাকা। ঈদের দিন ৭৫ হাজার টাকার এবং ২য় দিনে প্রায় ৫০ হাজর টাকার টিকেট বিক্রি হয়েছে।

তবে উদ্যানে ঘুরতে আসা অনেকেই অভিযোগ করেন, কিশোর গ্যাং সদস্যদের ছোট ছোট পিকআপ ও ট্রাকে করে অতিমাত্রায় নাচানাচি ও সাউন্ডবক্স এর ব্যবহার মানুষের পাশাপাশি বনের পশুপাখির জন্য তা ছিল অত্যন্ত ক্ষতিকর। এছাড়া তরুণদের বাইক রাইড ও উচ্ছৃঙ্খল আচরণও পর্যটকদের বিরক্তির কারণ।

চুনারুঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলী আশরাফ বলেন, পর্যটকদের নিরাপত্তায় উদ্যানে সার্বক্ষণিক পুলিশ দায়িত্ব পালন করেছে। পাশাপাশি টহল বাহিনীও ছিল তৎপর।

আজকের সর্বশেষ সব খবর