রবিবার | ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

ওয়াসার এমডির কয়টি বাড়ি আমেরিকায়, খোঁজ নিতে বললেন মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত : এপ্রিল ৩০, ২০২১




জার্নাল ডেস্ক : ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খানের আমেরিকায় অবস্থান প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আজকের পত্রিকায় দেখলাম, ওয়াসার এমডি তিন মাসের ছুটি নিয়ে আমেরিকা গেছেন। এই রকম একটা ক্রাইসিস, গরম আর কোভিডের মধ্যে ত্রাহী অবস্থায় তিনি নাকি আমিরিকায় গিয়ে সেখান থেকে অফিস চালাবেন। কেন, কারণটা কী? খোঁজ নিয়ে দেখেন যে, আমেরিকায় তার কয়টা বাড়ি হয়েছে, কী হয়েছে…।’

গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) গুম, খুনের শিকার দলীয় নেতা-কর্মীদের পরিবারকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষ থেকে অনুদান ও ঈদ উপহার দেয়ার অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ফখরুল।

কোভিড নিয়ে সরকার ব্যবসা করছে বলেও অভিযোগ করে ফখরুল বলেন, ‘মানুষ চিকিৎসা পাচ্ছে না। হাসপাতাল থেকে হাসপাতালে ঘুরে বেড়াচ্ছে আইসিইউ পায় না। অথচ দেড় বছর ধরে এই অবস্থা চলছে, তারা সেদিকে লক্ষ্য রাখেনি। তারা শুধু দেখেছে, কী করে টাকা বানানো ‍যাবে, কী করে দুর্নীতি করা যাবে সেসব নিয়ে তারা ব্যস্ত থেকেছে।‘

তিনি বলেন, ‘আজকে আমাদের দুর্ভাগ্য, যখন এরকম অবস্থা- এই সরকারের উচিত ছিল সমস্ত রাজনৈতিক দল, সমস্ত শক্তি একখানে ডেকে নিয়ে আলোচনা করে জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলার চেষ্টা করা। তারা চেষ্টা করতে পারত। তা করেনি।‘

টিকা সংগ্রহ করতে গিয়ে সরকার এখন পানি ঘোলা করে খাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘আমরা দেড় বছর আগেই বলেছিলাম যে, একটা সোর্স থেকে যেন ভ্যাকসিন না নেয়া হয়। তারা (সরকার) একটা সোর্স থেকে ভ্যাকসিন নিয়েছে তাদের নিজেদের স্বার্থে। যার ফলে কী হয়েছে- ভ্যাকসিন নাই, ভ্যাকসিন পাওয়া যাচ্ছে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা বলেছিলাম যে, চীন-রাশিয়ার বিকল্প উৎসগুলো দেখা হোক। তারা সেটা করে নাই। যার ফলে কী হতে যাচ্ছে? আজকে চীনের সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে, রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে। একটা বিশেষ প্রাণী আছে যারা ঘোলা করে পানি খায়। এদের অবস্থা হয়েছে তাই। এরা ঘোলা করে পানি খাচ্ছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের হাত থেকে যদি আমরা দেশকে রক্ষা করতে না পারি, গোটা জাতি নিঃশেষ হয়ে যাবে। এদের হাত থেকে পরিত্রাণ পেতেই হবে। আজকে চতুর্দিকে তাকিয়ে দেখবেন যে, সরকার বলতে কিছু নেই, প্রশাসন বলতে কিছু নেই, কোথাও কারও কোনো জবাবদিহি নেই্। নো বডি ইজ অ্যাকাউন্টেবেলিটি টু এনিবডি।’

তিনি বলেন, ‘জোর করে ক্ষমতায় থাকতেই এমন কৌশল নিতে হয়। জনগণের সঙ্গে সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই। যে কারণে জনবিচ্ছিন্ন এসব সরকারকে হত্যা, নির্যাতন, খুন ও গুম করে টিকে থাকতে হয়। এটা এখন নয়, বহু আগে থেকেই হয়ে আসছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘১৯৭৫ সালেও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে আজকের মতো কিশোর-তরুণদের হত্যা করেছে। জাসদের প্রায় ১৮ হাজার কিশোরকে হত্যা করা হয়েছে। সিরাজ সিকদারের মতো লোকদের পেছন থেকে হত্যা করা হয়েছে।’

এ সময় ফখরুল বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতায় দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তিনি এখন অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তিনি এখানে বসে আপনাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। আমার মনে আছে, আগে প্রতিবছর ইফতারের সময়ও বিভিন্ন স্থানে গিয়ে আপনাদের সঙ্গে দেখা করেছেন। আমরা তার সুস্থতার জন্য দোয়া করি। তিনি যেন আবার আমাদের মাঝে ফিরে আসতে পারেন।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সাত বছর ধরে এই পরিবারগুলোকে চিহ্নিত করেছেন। আমাদের অঙ্গসংগঠন ও বিএনপির নেতা-কর্মীদের সহযোগিতায় যত সমস্যাই হোক না কেন, ঈদের কিছু উপহার প্রদান করে আসছেন। এই ধরনের অনুষ্ঠান প্রতিবছর আমাদের আবেগাপ্লুত করে, ভারাক্রান্ত করে। আমরা জানি, আপনাদের যে ক্ষতি হয়েছে তা পূরণ হওয়ার নয়।’

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের তথ্য তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, সংস্থাটির হিসাবে গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত সারা দেশে মোট ৬০১ জন গুম হয়েছে। বিচারবহির্ভূত হত্যা হয়েছে ২ হাজার ৮০১ জনের। এর জবাব অবশ্যই আওয়ামী লীগকে দিতে হবে।’

আওয়ামী লীগ মিডিয়া, সংসদ, নির্বাচন কমিশন তাদের মতো করে দখল করে নিয়েছে অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘এই দেশের ইতিহাস বলে একনায়কতন্ত্র, স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করে মানুষ জয়লাভ করেছে। আমি বিশ্বাস করি, অবশ্যই আমরা এদের পরাজিত করতে সক্ষম হব। আমাদের যারা হারিয়ে গেছে, মৃত্যুবরণ করেছে, গুম হয়েছে তাদের রক্ত বৃথা যেতে পারে না।’

অনুষ্ঠানে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান, স্বাধীনতা উদযাপনে মিডিয়া উপকমিটির সদস্য আতিকুর রহমান রুমন রুম্মন বক্তব্য রাখেন। ‘নিখোঁজ’ ছাত্রদলের নেতা নুরুজ্জামান জনি, জাকির হোসেন, তরিকুল ইসলাম তারা, মাহবুবুর রহমান বাপ্পী, তারিকুল ইসলাম ঝন্টুর পরিবারের সদস্যদের হাতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার তুলে দেন বিএনপি মহাসচিব। গুম ও খুন হওয়া ৮৭৭ জন পরিবারের সদস্যদের বাড়িতে ঈদের এই উপহার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে বলে আয়োজকরা জানান।

অনুষ্ঠানে বিএনপির কেন্দ্রীয় দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল হক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, যুব দলের সাইফুল আলম নিরব, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, এসএম জাহাঙ্গীর, কামরুজ্জামান দুলাল, স্বেচ্ছাসেবক দলের আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, ইয়াসীন আলী, ছাত্রদলের ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ ছাত্র, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো নিউজ

মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে হলে খালেদা জিয়ার মুক্তি নিশ্চিত করতে হবে: জি কে গউছ
জনপ্রিয়তা হারানো বিএনপি পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়: এমপি আবু জাহির
জাতীয় পার্টিকে ভদ্রলোকের দলে পরিণত করতে চাই: বিদিশা এরশাদ
শেষ ওভারে জিতলো অস্ট্রেলিয়া
শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে ৮ দফা দাবি
আজকের সর্বশেষ সব খবর