সোমবার | ৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

খেলার মাঠে থানা নির্মাণের প্রতিবাদে লাইভ চলাকালে নারীকে আটক

প্রকাশিত : এপ্রিল ২৪, ২০২২




জার্নাল ডেস্ক ॥ রাজধানীর কলাবাগানের তেঁতুলতলা খেলার মাঠে থানা নির্মাণের প্রতিবাদে ফেসবুকে লাইভ করার সময় আন্দোলনকারী ও সমাজকর্মী সৈয়দা রত্নাকে আটক করেছে পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় তাকে আটক করা হয়েছে।

রবিবার (২৪ এপ্রিল) সকালে তেঁতুলতলা মাঠ থেকে নারী পুলিষের একটি দল তাকে পুলিশের ভ্যানে তুলে থানায় নিয়ে যায়।

এর আগে মাঠে অর্ধশতাধিক পুলিশ মোতায়েন করে সেখানে অবকাঠামো নির্মাণ শুরু হয়। কলাবাগান থানা ভবন নির্মাণ হওয়ার কথা রয়েছে সেখানে।

এ বিষয়ে ডিএমপির রমনা বিভাগের নিউমার্কেট জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপকমিশনার শাহেন শাহ বলেন, সরকারি কাজে বাধা দেওয়ায় রত্না নামের একজনকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্বে মামলা হবে। এরপর তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।

এরআগে গত ৩১ জানুয়ারি মাঠটিতে তারকাঁটার বেড়া দিয়ে বেষ্টনী তৈরি করে পুলিশ। খেলার মাঠ হিসেবে পরিচিত জায়গাটিতে কলাবাগান থানার ভবন হওয়ার কথা রয়েছে। তবে থানা ভবন নির্মাণের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে এলাকাবাসী আন্দোলন করছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মাঠটির চারদিকে কয়েকটি রেইনট্রি ও মেহগনি গাছ, এক পাশে আবর্জনার ভাগাড়। এছাড়াও মাঠের এক কোণায় স্থানীয়দের লাশ গোসল করানোর ঘর রয়েছে।

জায়গাটি খোলা হওয়ায় সেখানে স্থানীয় শিশুরা সুযোগ পেলেই খেলায় মেতে ওঠে। বড়রাও নিয়মিত হাঁটেন, আড্ডা দেন। এটিই ঢাকার কলাবাগানের তেঁতুলতলা মাঠ নামে পরিচিত। তবে প্রস্তাবিত কলাবাগানের থানা ভবন হওয়ায় এটি এভাবে ব্যবহারের সুযোগ থাকছে না।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে, এটি সিটি করপোরেশনের তালিকাভুক্ত কোনও মাঠ নয়। স্থানীয় লোকজন মাঠের মতো করে ব্যবহার করে আসছেন।

গত বছরের ২৪ আগস্ট ঢাকা জেলা প্রশাসনের এক নোটিসে বলা হয়, ডিএমপির কলাবাগান থানার নিজস্ব ভবন নির্মাণের জন্য এই সম্পত্তি সরকার কর্তৃক অধিগ্রহণের প্রস্তাব করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের ওই নোটিশে এই জমিকে পতিত জমি হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর থেকে কলাবাগানের বাসিন্দা, পরিবেশবাদী বিভিন্ন সংগঠন, সমাজকর্মী, উন্নয়নকর্মী, সাংস্কৃতিককর্মী ও শিশু-কিশোররা এই নোটিশের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করেন।

আজকের সর্বশেষ সব খবর