শনিবার | ১০ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা সংশোধনই প্রমাণ করে বিএনপি দুর্নীতিবাজের দল

প্রকাশিত : নভেম্বর ২২, ২০২২




স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির বলেছেন, বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ নম্বর ধারায় উল্লেখ ছিল চুরির মামলায় কেউ সাজার আদেশপ্রাপ্ত হলে সে আর দলের পদে থাকতে পারবে না। কিন্তু এতিমের টাকা আত্মসাতের দায়ে সাজার আদেশপ্রাপ্ত খালেদা জিয়াকে পদে রাখতে তাঁরা সেই ধারাটি সংশোধন করেছে। এতেই প্রমাণ হয় বিএনপি একটি দুর্নীতিবাজের দল।

এমপি আবু জাহির মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) বিকেলে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় দুটি উন্নয়ন কাজের ভিত্তিপ্রাস্তর স্থাপন শেষে সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। এর আগে তিনি প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার কদমতলী হাফিজিয়া মাদ্রাসা থেকে মড়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সড়ক ও কদমতলী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় চারতলা ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

সমাবেশে এমপি আবু জাহির আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশে চুরি, ডাকাতি, মদ ও জুয়া বন্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে থেকে কাজ করে। কিন্তু বিএনপির আমালে প্রতিটি এলাকায় মদ, জুয়া, হাউজি বাম্পারকে প্রশ্রয় দিয়ে যুব সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়। দেশের উন্নয়ন তো দূরে থাক; তাঁরা দেশকে পেছনের দিকে টেনে নিয়ে যায়। বর্তমান সরকারের সময়ে দেশের যে উন্নয়ন-অগ্রগতি হয়েছে তা অব্যাহত রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দেওয়ার বিকল্প নেই। এ সময় উপস্থিত লোকজন হাত তুলে তাঁর বক্তৃতার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন। পরে স্থানীয় কয়েকজন বিএনপি নেতা এমপি আবু জাহির এর হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।

স্থানীয় চারগ্রাম সভাপতি আব্দুল মোমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল, ভাইস চেয়ারম্যান গাজিউর রহমান ইমরান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তা আক্তার, শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মোঃ বুলবুল খান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।