শনিবার | ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

চাঁপাইনবাবগঞ্জে কবর চুরির ভয়ে কংক্রিটের ঢালাই

প্রকাশিত : আগস্ট ৬, ২০২১




জার্নাল সারাদেশ বার্তা ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় গত সোমবার (৪ আগস্ট) বজ্রপাতে ১৬ জন নিহত হন। এদের ১৫ জনই ছিলেন জেলার সদর উপজেলার বাসিন্দা। তারা ছিলেন সদর উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের পদ্মানদী ঘেঁষা মহারাজনগর ডাইলপাড়া গ্রামের শরিফুলের ছেলে মামুনের বিয়ের অনুষ্ঠানের অতিথি।

মামুন পাশের শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্মানদী ঘেঁষা ৩ নং ওয়ার্ড দক্ষিণ পাঁকা গ্রামে ঘটনার ৩ দিন আগে বিয়ে করেন ও সেখানে অবস্থান করছিলেন। বিয়ের অতিথিরা নৌকাযোগে মামুনকে নিজ বাড়িতে আনতে কনের গ্রামের ঘাটে পৌঁছামাত্র বজ্রপাত ঘটে। ঘটনার প্রায় সাথে সাথে বিয়ের অতিথি নিহত ১৫ জনের সকলকে আবারও নৌকাযোগে মামুনের গ্রামে নিয়ে আসা হয়।

এদিকে একই বজ্রপাতে কনের গ্রামের এক ব্যাক্তিও নিহত হন। তাকে সেখানেই রেখে আসা হয়। এ ঘটনার পরপরই বর মামুনের বাড়িতে ও নিহত এবং আহত স্বজনদের বাড়িতে এখনও চলছে শোকের মাতম।

এদিকে একই গ্রামে ঘটনার দিন গত বুধবার রাতে বর মামুনের নানা তবজুল হোসেনের (৭০) বাড়ির উঠোনে নানার পরিবারের ৬ জনকে পাশাপাশি কবর দেয়া হয়। তারা হলেন নানা তবজুল, নানী জমিলা বেগম (৬০), খালা লেচন বিবি (৪৫), লেচনের ছেলে বাবলু (২২), মামা সাদিকুল ইসলাম (৪০) ও মামি টকিয়ারা বেগম (৩০)। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে তবজুলের বাড়ির উঠোনে তারসহ পাশাপাশি ৬টি কবর কনক্রিটের ঢালাই ও ঘেরাও দিয়ে সুরক্ষিত করা হয়।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান মোমিন শরিফ বলেন, গ্রামে কুসংস্কার রয়েছে, বজ্রপাতে নিহতদের মরদেহ দিয়ে নাকি কবিরাজি করা হয়। এ জন্য অনেক সময় বজ্রপাতে নিহতদের মরদেহ চুরির ভয়ে ঢালাই করে দেয়া হয়।

এদিকে বজ্রপাতের ঘটনায় নিহত অন্য কোনো মরদেহ ঢালাই করা হয়েছে কি না তা খোঁজ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো নিউজ

অভাবের সাথে যুদ্ধ করে ক্লান্ত, একটু রেস্ট দরকার; স্ট্যাটাস দিয়ে বিজিবি সদস্যের আত্মহত্যা
শেষ ওভারে জিতলো অস্ট্রেলিয়া
শাহবাগে ‘গণঅনশন ও অবস্থান’ কর্মসূচিতে ৮ দফা দাবি
ইকবালের বিষয়ে ফখরুলের কাছে তথ্য আছে: ওবায়দুল কাদের
একেক সময় একেক তথ্য দিচ্ছেন ইকবাল
আজকের সর্বশেষ সব খবর