বুধবার | ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

জগন্নাথপুরে ২য় স্ত্রী’র আঘাতে স্বামী খুন, ঘাতক স্ত্রী গ্রেফতার

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১




সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ৯নং পাইলগাঁও ইউনিয়নের গোতগাঁও (আমিনপুর) গ্রামে স্ত্রীর আঘাতে স্বামী খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে লাশ উদ্ধার করেছে। খুন হওয়ার ১০ ঘন্টার মধ্যে ঘাতক স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের গোতগাঁও (আমিনপুর) গ্রামের দিনমজুর আলেক মিয়া (৫০) তিন মাস আগে রানীগঞ্জ ইউনিয়নের বাঘময়না (টেকুয়া) গ্রামের মৃত আরমান মিয়ার স্বামী পরিত্যক্ত মেয়ে রেনু বেগম (৩০) কে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। আলেক মিয়ার প্রথম স্ত্রী ও তিন মেয়ে দুই ছেলের সংসারে আলাদা ঘরে নব বিবাহিত স্ত্রীকে নিয়ে তিনি বসবাস করতেন।

শুক্রবার রাতে নিজ শয়নকক্ষে ২য় স্ত্রীকে নিয়ে ঘুমাতে যান তিনি।  শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে।

সকালে দেখা যায় আলেক মিয়া মৃত অবস্থায় পড়ে আছেন আর ঘরে নেই স্ত্রী। আলেক মিয়ার মাথায় আঘাতও রক্তের দাগ রয়েছে। মাথার পাশে একটি রক্তাক্ত কাঠের টুকরো পড়ে ছিল। বিষয়টি তাঁর সন্তানরা থানায় অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

আরমান মিয়ার মেয়ে রেনু বেগমের বাগময়না গ্রামের বাড়িতে গিয়ে পরিবারবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গত ১০ বছর ধরে রেনু বেগমের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ নেই। সে মানসিক ভাবে অসুস্থ। ইতিমধ্যে তার দুই বিয়ে হয়েছিল। প্রথম স্বামীর এক ছেলে শিশুকে গলাটিপে হত্যার কথাও জানা যায়।

খুন হওয়ার খবর পাওয়ার সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করেন। পাশাপাশি ঘাতক স্ত্রীকে খোঁজে বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন। অবশেষে বিকালের দিকে থানার চৌকস পুলিশ অফিসার এসআই অনিক দেবের নেতৃত্বে একদল পুলিশ জগন্নাথপুর থানার শেষ সিমান্ত থেকে ঘাতক স্ত্রীকে গ্রেফতার করেন।

জগন্নাথপুর থানা ওসি (তদন্ত) মুসলেহ উদ্দিন বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ ঘটনার রহস্য উদঘাটন করার চেষ্টা করছি ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করেছি। তদন্ত স্বার্থে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর