বৃহস্পতিবার | ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

তিন জেলায় বজ্রপাতে পাঁচজন নিহত, আহত তিন

প্রকাশিত : মে ৩, ২০২২




জার্নাল সারাদেশ বার্তা ॥ ঈদুল ফিতরের দিনে দেশের তিন জেলা টাঙ্গাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও মেহেরপুরে বজ্রপাতে পাঁচজন নিহত ও আহত হয়েছেন আরো তিনজন। নিহতদের মধ্যে তিনজন কিশোর হয়েছেন।

মঙ্গলবার (৩ মে) সকালে এ তিন জেলায় বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে।

টাঙ্গাইল: নিহত ৩

সকালে টাঙ্গাইলের কালিহাতীর হতিয়া নদীতে গোসল করার সময় বজ্রপাতে তিন কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। বজ্রপাতে আহত হয়েছে নদীতে গোসল করতে যাওয়া আরো দুজন।

দশকিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মালেক ভুঁইয়া জানান, ঈদের নামাজ পড়ার আগে সকালে তারা নদীতে গোসল করতে গিয়েছিল। এসময় প্রবল বৃষ্টি ও বজ্রপাত শুরু হয়। গোসল করার সময় হঠাৎ বজ্রপাতে উপজেলার হাতিয়া এলাকার রবিউলের ছেলে আরিফ (১৫) ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত অবস্থায় আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রফিক (১৪) এবং দশকিয়া পূর্ব পাড়া গ্রামের জুলহাসের ছেলে ফয়সালকে (১৬) টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: নিহত ১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আখাউড়ায় বজ্রপাতে মো. রনি (৩৬) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। সকালে ঈদুল ফিতরের নামাজ শেষে আখাউড়া পৌর শহরের খড়মপুর মাজার শরীফের কবরস্থান জিয়ারত করার সময় বজ্রপাতে তিনি নিহত হন।

নিহত রনি আখাউড়া পৌর শহরের দূর্গাপুর ১ ওয়ার্ড এর বাসিন্দা মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন আখাউড়া পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম স্বপন।

মেহেরপুর: নিহত ১

সকালে মেহেরপুরের সদর উপজেলার মনোহরপুর গ্রামে বজ্রপাতে আব্দুর রাজ্জাক নামের কৃষকের (৫৩) মৃত্যু হয়েছে। একই ঘটনায় মন্টু (৪৮) নামের একজন আহত হয়েছেন। মন্টু নিহত আব্দুর রাজ্জাকের ছোট ভাই।

মেহেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ দারা খাঁন জানান, সকালে ঈদের জামাতের জন্য বাড়ি থেকে বের হয় রাজ্জাক ও মন্টু। পথিমধ্যে বজ্র্যপাত হয়। পরে এলাকাবাসী মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাককে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের আরএমও মোখলেছুর রহমান।

আজকের সর্বশেষ সব খবর