শুক্রবার | ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

দর্শক জোয়ারে ভাসছে ‘মিশন এক্সট্রিম’ খুশি হল মালিকরা

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৪, ২০২১




বিনোদন ডেস্ক ॥ শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে মাসলম্যান খ্যাত অভিনেতা আরিফিন শুভ অভিনীত বহুল প্রতীক্ষিত ছবি ‘মিশন এক্সট্রিম’। মুক্তির দিন থেকেই ঢাকা ও ঢাকার বাইরে দর্শক জোয়ারে ভাসছে ছবিটি। এমনটাই জানালেন ‘মিশন এক্সট্রিম’ সংশ্লিষ্টরা। জানালেন, যে টার্গেট নিয়ে ‘মিশন এক্সট্রিম’ মুক্তি দেয়া হয়েছে, প্রথম দিনে দর্শক সাড়া যেন সেই সফলতার পথই দেখাচ্ছে।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) দুপুরে গণমাধ্যমকে ‘মিশন এক্সট্রিম’ এর পরিচালক সানী সানোয়ার বলেন, প্রথম দিনে দারুণ সাড়া পেয়েছি আমরা। শুধু ঢাকা নয়, ঢাকার বাইরের প্রেক্ষাগৃহগুলোর সার্বক্ষণিক খবর রাখছি। হল মালিকদের প্রায় সবাই দারুণ খুশি। তারা আমাদের জানিয়েছেন, শুক্রবার সকালের শোতে খুব বেশি দর্শক না থাকলেও দুপুর ও সন্ধ্যার শোতে বেশ ভালো দর্শক পেয়েছেন। রাতের অনেক শো হয়েছে হাউসফুল। তারা বলছেন, বিগত দুই-তিন বছরে সিনেমা হলগুলোতে এমন দর্শক তারা দেখেননি।

সানী সানোয়ার বলেন, মুক্তির দ্বিতীয় দিন সকাল থেকে ঢাকা ও ঢাকার বাইরের হলগুলো থেকে ভালো সাড়া পাওয়ার কথা শুনছি। অনেক হল মালিক ফোন করে জানিয়েছেন যে, শুক্রবার সকালের চেয়ে শনিবার সকালের শোতে অনেক বেশি দর্শকের সমাগম ঘটছে। আমরাও আশা করছি, সময়ের সাথে সাথে ‘মিশন এক্সট্রিম’ দেখতে সিনেমাপ্রেমী সকল মানুষই সিনেমা হলে আসবেন।

হল মালিকরা ফোন করে ‘ধন্যবাদ’ জানাচ্ছেন বলেও এসময় জানান সানী সানোয়ার। বললেন, গত দুই তিন বছরের সিনেমা হলগুলোর তুলনামূলক চিত্র হচ্ছে ভয়াবহ। দর্শক নেই বললেই চলে, এমন রিপোর্টই আমরা পেয়েছি। অনেক সিনেমা হল এরইমধ্যে বন্ধও হয়ে গেছে। ‘মিশন এক্সট্রিম’ এর বদৌলতে অন্তত কুড়িটার মতো সিনেমা হল আবার খুলেছে। হয়তো নতুন সিনেমার ধারাবাহিকতা বজায় না থাকলে আবারও সেগুলো বন্ধ হয়ে যাবে।

সানী সানোয়ার জানান, আরো কুড়িটার মতো সিনেমা হল ‘মিশন এক্সট্রিম’ নিতে চেয়েছিলো। কিন্তু হলগুলোতে টেকনিক্যাল কিছু সমস্যা থাকায় প্রথম সপ্তাহে সেগুলোতে তারা দেননি। এরইমধ্যে টেকনিক্যাল ঝামেলাগুলো সারানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। দ্বিতীয় সপ্তাহে সেসব প্রেক্ষাগৃহগুলোতেও ‘মিশন এক্সট্রিম’ মুক্তি দেয়া হবে।

মুক্তির প্রথম দিন থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন হল ঘুরে দেখছেন ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র আরিফিন শুভ, ঐশী সহ নির্মাতা ও কলাকুশলীরা। সবখানেই শুভকে ঘিরে ধরতে দেখা গেছে দর্শক অনুরাগীদের।

শনিবারেও ‘মিশন এক্সট্রিম’ টিম অন্তত তিনটি প্রেক্ষাগৃহে যাবে বলে জানালেন সানী সানোয়ার। তিনি বলেন, আজকে দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে আমরা যাচ্ছি যমুনা ব্লকবাস্টারে, সেখান থেকে সন্ধ্যা ৬টায় যাবো মধুমিতায়। এরপর রাত ৯টার দিকে যাবো স্টার সিনেপ্লেক্স এর সীমান্ত স্কয়ারে।

বাংলাদেশের বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তিতে ‘মিশন এক্সট্রিম’ মহাসমারোহে মুক্তি পেয়েছে দেশের ৫০ হলে। পুরো সিনেমা টিমের জন্য এটি গৌরবের বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

গত ১৮ নভেম্বর খুলনার ‘শঙ্খ’ ও ‘চিত্রালি’ দিয়ে শুরু সিনেমাটির হল বুকিং পর্ব শুরু হয়। এরপর একে একে আরও ৪৮ হলে প্রথম সপ্তাহে ‘মিশন এক্সট্রিম’ মুক্তির ব্যাপারটি নিশ্চিত হয়েছে।

বহুল প্রতীক্ষিত এই সিনেমায় আরফিন শুভ ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে আরও রয়েছেন- তাসকিন রহমান, সাদিয়া নাবিলা, ঐশী, রাইসুল ইসলাম আসাদ, ফজলুর রহমান বাবু, শতাব্দী ওয়াদুদ, ইরেশ যাকের, মনোজ প্রামাণিক, আরেফ সৈয়দ, রাশেদ মামুন অপু, এহসানুল রহমানসহ অনেকে।

কুল নিবেদিত ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমাটি পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট তথা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ‘সিটিটিসি’র কিছু শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে নির্মিত। এর গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন পুলিশ সুপার (এসপি) সানী সানোয়ার নিজেই, ছবির আরেক পরিচালক ফয়সাল আহমেদ। সিনেমাটির সহযোগী প্রযোজক হিসেবে রয়েছে মাইম মাল্টিমিডিয়া ও ঢাকা ডিটেকটিভ ক্লাব।

 

আজকের সর্বশেষ সব খবর