বুধবার | ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ

প্রকাশিত : নভেম্বর ৩, ২০২১




মোঃ আলাল মিয়া, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ নবীগঞ্জ পৌরসভার ছালামতপুরস্থ পৌর পশুর হাট চলতি বাংলা সনের চৈত্র মাস পর্যন্ত ইজারা দেয় পৌরসভা। টেন্ডারের মাধ্যমে ১ কোটি ২০ লাখ ৯৯ হাজার ৯৯৯ টাকায় ইজারা পান হবিগঞ্জ এর মিজানুর রহমান নামের এক ইজারাদার। ১ কোটি ২০ লাখ ২০ টাকা মূল্য দিয়ে ২য় স্থানে ছিলেন নবীগঞ্জের ইজারাদার ফয়জুর রহমান নানু (বর্তমান কাউন্সিলর)।

ইজারার প্রথম দিকে করোনার কারনে পশুর হাট কিছুটা ঢিলেঢালা হলেও পরবর্তীতে জমজমাট হয়ে উঠে পৌর পশুর হাট।

কিন্তু করোনার অজুহাত দেখিয়ে পৌরসভার দায়িত্বশীল ব্যক্তির সমন্নয়ে মহামান্য হাইকোর্টে ইজারাদার কর্তৃক খতিপুরণের দাবী জানিয়ে একটি পিটিশন দেন। এ ব্যাপারে মহামান্য হাইকোর্ট একটি নির্দেশনা দেন। এই নির্দেশনার অজুহাত দেখিয়ে পৌর মেয়র ছাবির আহমদ চৌধুরী জরুরী ভিত্তিতে কাউন্সিলরদের নিয়ে এক বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে ২/৩ জন কাউন্সিলর ব্যতিত পৌর মেয়র ও অন্যান্য কাউন্সিলরগণ ইজারাদার কে কমপক্ষে ১৭ লাখ টাকা ফেরৎ দেয়ার চেষ্টা করা হয়। শেষ পর্যন্ত প্যানেল মেয়র-১ জায়েদ চৌধুরীসহ ২/৩ জন কাউন্সিলরদের সহমত না হওয়ায় সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হয়নি। পরবর্তীতে এ বিষয়ে পুণঃরায় বসার কথা রয়েছে। এদিকে হাইকোর্টের নির্দেশনার কাগজটি একজন বিজ্ঞ হাইকোর্টের আইনজীবীর নিকট প্রেরন করে পরামর্শ চাওয়া হয়। এ ব্যাপারে ওই আইনজীবী বলেন, ক্ষতিপূরণের টাকা দিতেই হবে এমন কোন নির্দেশনা নেই। তবে চাইলে পৌর কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে পিটিশন দিয়ে তা বাতিল বা স্থগিতাদেশ করাতে পারেন। এই খবর পৌর এলাকায় ছড়িয়ে পরলে নাগরিকদের মাঝে ক্ষোভ পরিলক্ষিত হয়।

তারা বলেন, কেউ যদি আদালাতে অন্যায়ভাবে আশ্রয় নিয়ে এক তরফা কোন আদেশ বা নির্দেশনা নিয়ে আসেন, সেখানে পৌর কর্তৃপক্ষ তা বাতিলের পিটিশন না দিয়ে ইজারাদার কে এত গুলো টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার জন্য এত আগ্রহ কেন। ইজারাদার দলীয় লোক নাকি পৌরসভার দায়িত্বশীল কেউ ইজারায় শেয়ার রয়েছেন এমন কোন কারন বিদ্যমান কি না তা দেখার বিষয়।

এদিকে গোপন সুত্রে জানাগেছে, ক্ষতিপূরণ বাবদ ইজারাদারকে ১৭ লাখ টাকার নীতিগত সিদ্ধান্ত যাহাতে বাস্তবায়িত হয় ইজারাদারের পক্ষে জনৈক ছাত্রদল নেতা বিভিন্ন কাউন্সিলরদের বাসায় উপটৌকন ও নগদ টাকা বিতরণ করার ঘটনায় আলোচনার ঝড় উটে। কেউ কেউ তা ফেরৎও দেন। বাজার ইজারার টাকা কোন অজুহাতে ফেরৎ দিলে ভবিষ্যতে বিশাল খেসারত দিতে হবে পৌরসভা। পৌর পরিষদ মনগড়া কোন সিদ্ধান্ত না দিয়ে প্রতিষ্টান এবং নাগরিকদের অবস্থা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত গ্রহনের দাবী নাগরিক সমাজের।

এই বিভাগের আরো নিউজ

নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ
নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ
নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ
নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ
নবীগঞ্জ পৌর পশুর হাটের ইজারার টাকা ফেরৎ দেয়া নিয়ে বিভক্তি পরিষদ
আজকের সর্বশেষ সব খবর