বৃহস্পতিবার | ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

নলছিটিতে প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২




বুলবুল আহমেদ, ঝালকাঠি প্রতিনিধি ॥ ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার মালোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অর্থআত্মসাৎ, স্বেচ্ছাচারিতা, অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি ও অভিভাবকরা।

উপজেলার সিদ্ধকাঠি ইউনিয়নের ৫৫নং মালোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানী বিরুদ্ধে এ অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমিরুল ইসলাম রাজিব।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৫৫নং মালোয়ার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানী অদৃশ্য ক্ষমতার বলে স্কুলের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে প্রায়ই খারাপ আচরণ করে থাকেন। বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজের জন্য বরাদ্দকৃত বিগত তিন বছরের স্লিপমানি ও ক্ষুদ্র মেরামতের টাকা উত্তোলন করে নামসর্বস্ব ভুয়া বিল ভাউচার তৈরি করে অর্থ আত্মসাৎ করেন। মাঝে মাঝে ৭/৮ দিন পরে এসে হাজিরা খাতায় সই করেন। যার প্রমান সাদা হাজিরা খাতার ছবি রয়েছে। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের নিয়ে কোন মিটিং করেন না। এবং তিনি বিদ্যালয়ে সকাল দশটার পরে আসেন।

প্রধান শিক্ষিকা মলিনা রানীর নিয়মিত স্কুলে না যাওয়ায়, সরকারি বিভিন্ন কাজ কর্মের অযুহাত দেখিয়ে স্কুল ফাঁকি দেয়া ও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের দিয়ে তার ব্যক্তিগত কাজ করানো সহ তাঁর বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ করেছেন অভিভাবকরা।

প্রধান শিক্ষকা মলিনা রানী অর্থআত্মসাৎ, অনিয়ন ও দুর্নীতির সকল অভিযোগ অস্বীকার করেন। এবং তিনি বলেন, সাংবাদিকদের এ বিষয়ে কোন প্রকার তথ্য দিতে চাই না।

স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমিরুল ইসলাম রাজিব জানান তিনি আমার স্বাক্ষর জাল করে অর্থ আত্মসাৎ করার একটি চেক জালিয়াতি মামলা দিয়েছি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান মোঃ রুহুল আমিন জানান প্রধান শিক্ষক মলিনা রানী বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর