সোমবার | ৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

বানিয়াচংয়ে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত : আগস্ট ২৪, ২০২২




বানিয়াচং প্রতিনিধি ॥ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) সকাল ১০ ঘটিকায় বানিয়াচং উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বানিয়াচং উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম চৌধুরী।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইফফাত আরা জামান উর্মির সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ অজয় চন্দ্র দেব, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আমীর হোসেন মাষ্টার, ইউপি চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দারুজ্জামান খান ধনমিয়া, জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মুফতি মাওলানা আতাউর রহমান,বানিয়াচং উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি এস এম খোকন, ইউপি চেয়ারম্যান আরফান উদ্দিন, আনুয়ার হোসেন, জয়কুমার দাশ, মঞ্জুকুমার দাশ,এরশাদ আলী, সাবেক শিক্ষক বিপুল ভূষন রায়, বানিয়াচং উপজেলা আওযামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান মিয়া, মডেল প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক শিব্বির আহমদ আরজু প্রমুখ ।

এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন দফতরের প্রধান, ইউপি চেয়ারম্যান ও আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আমীর হোসেন মাষ্টার বলেছেন এএসআই দিলুয়ারের বিরুদ্ধে বানিয়াচংয়ে বিভিন্ন স্পটে মাদক বিক্রির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। হবিগঞ্জের পুলিশ সুপারের সাথে আলাপ করে তাকে দ্রুত বানিয়াচং থেকে বিদায় করতে অফিসার ইনচার্জকে তিনি অনুরোধ জানান।

বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ অজয় চন্দ্র দেব বলেছেন, দাঙ্গা, চুরি, ডাকাতি, মাদক, ইভটেজিংসহ সকল প্রকার অপরাধ নির্মুলে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশের অভিভাবক পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলি স্যারের নির্দেশনায় বানিয়াচং থানা পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। অপরাধ মুক্ত বানিয়াচং গঠনে তিনি সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।

বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী বলেছেন মুরাদপুর এসএসডিপি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে কেন বিদ্যালয়ে যেতে দেয়া হচ্ছেনা এলকাবাসীসহ আমি মাননীয় এমপি মহোদয়ের সঙ্গে আলাপ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব। এছাড়া গত ২২ আগষ্ট রাতে দীর্ঘদিন যাবত চলা সিএনজির বাড়া সংক্রান্ত বিরোধ নিস্পত্তি করার কথাটি তিনি আইনশৃঙ্খলা কমিটিকে অবগত করেন। এসময় তিনি বলেন নিস্পত্তির স্বর্ত হচ্ছে ৪৫ টাকার বেশী বাড়া নেয়া যাবেনা। শ্রমিকদের যেকোন আন্দোলন হলে গাড়ী বন্ধ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকরা যাবেনা। এছাড়া কোন ড্রাইভার যাত্রীদের সাথে খারাপ আচরণ করলে সিএনজির নাম্বারসহ দ্রুত উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা প্রশাসনকে অবগত করার আহবান জানিয়েছেন তিনি।

সভাপতির বক্তব্যে সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইফফাত আরা জামান উর্মি বলেছেন, আইনশৃঙ্খলা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন থেকে রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার ছাড়া এবং ১৮ বছরের নীচে কেউ টমটম অথবা মিশুক চালাতে পারবে না। ইতিমধ্যে এবিষয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা শুরু করা হয়েছে। নিয়তি বাজার মনিটরিংসহ মোবাইল কোট পরিচালনা করা হবে। অন্যায়কারী যেই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এছাড়া উপজেলা নির্বাচন অফিস দালাল মুক্ত করাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

 

আজকের সর্বশেষ সব খবর