বৃহস্পতিবার | ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

শায়েস্তাগঞ্জে অবৈধ তারকাটা ফ্যাক্টরিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২০, ২০২১




শায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ শায়েস্তাগঞ্জে আবাসিক এলাকায় অবৈধ তারকাটা কোম্পানির মাধ্যমে পরিবেশের ক্ষতি করায় শামসুল আলম (৪৩) নামে একব্যক্তিকে কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রোববার বিকালে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরএলাকার দক্ষিণ লেঞ্জাপাড়া এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইয়াসিন আরাফাত রানা।

এসময় যথাযথ পদ্ধতিতে বর্জ্য নিষ্কাশন না করে পরিবেশের ক্ষতি করে কে এম নেইল নামক লোহা প্রস্তুতকারক কোম্পানি চালু রাখায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ এর আওতায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর হবিগঞ্জের উপপরিচালক মিজানুর রহমান। অভিযানে সার্বিক সহযোগিতা করে শায়েস্তাগঞ্জ থানার একদল পুলিশ।

উল্লেখ্য গত ২ ডিসেম্বর হবিগঞ্জের বিভিন্ন পত্রিকায় ” শায়েস্তাগঞ্জের আবাসিক এলাকায় শিল্প; পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা ” শিরোনামে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে নিউজ প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সংবাদ হতে জানা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার বিরামচর গ্রামে ২০১৯ সালে একই এলাকার আব্দুল নুরের ছেলে শামছুল আলম পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই আবাসিক এলাকায় “কেএম নেইল” নামে এই তারকাটা ফ্যাক্টরিটি প্রতিষ্ঠা করেন। নিয়মনীতি অনুসরণ না করেও রহস্যজনক ভাবে দীর্ঘদিন ধরে পরিচালনা করে আসছেন এই কারখানাটি। কোন ধরনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় উন্মুক্ত স্থানে ফেলা হচ্ছে ক্ষতিকর রাসায়নিক বর্জ্য, ফলে কালশিটে হয়ে গেছে পার্শ্ববর্তী ক্ষেতের ধান। ক্যালসিয়াম হাইড্রোক্সাইডের মতো ক্ষতিকর রাসায়নিক বর্জ্য যাচ্ছে ধানী জমিতে, ফলে হলুদ বর্ণ ধারন করেছে সেই ক্ষেতের মাটি। নেই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সিস্টেম ও আগুন নির্বাপক ব্যবস্থাও। ভেতরে প্রায় ডডজনখানেক মেশিন দিয়ে চলে বিশাল কর্মযজ্ঞ। মেশিনের বিকট শব্দের মধ্যেই কাজ করছেন ১৫-২০ জন শ্রমিক । অথচ এই কারখানার পূর্বে ঢিল ছুঁড়া দুরত্বে বিরামচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর-পশ্চিমে ৮০ মিটারের মধ্যে ইউনিয়ন ভূমি অফিস ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের মতো জনগুরুত্বপূর্ণ দফতর। উত্তরে কারখানার দেয়াল ঘেষে রয়েছে ১ তলা বাড়ি, উত্তর পশ্চিমে ৫০ মিটারের মধ্যে রয়েছে ১ টি হোমিও চিকিৎসালয়। দক্ষিণ দিকে কারখানার অদুরেই রয়েছে আবাসিক বাসা-বাড়ি। আবাসিক এলাকায় গড়ে উঠা অবৈধ কারখানাটি স্থায়ী ভাবে বন্ধ করার দাবী জানান ওই এলাকার বাসিন্দা ও পরিবেশ বাদীরা।

আজকের সর্বশেষ সব খবর