রবিবার | ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সরকার অবৈধ হলে খালেদার মুক্তির আবেদন কেন, প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২৩




জার্নাল ডেস্ক ॥ লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারা (বিএনপি) বলে (কর্মসূচি পালনে সরকারের কাছে) আর অনুমতি নেবে না। অবৈধ সরকারের কাছ থেকে অনুমতি নেবে না। তাহলে অবৈধ সরকারের কাছে খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন কেন? এ সরকার যদি অবৈধ হয়, এখানে কেন আবেদন?

শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে কৃষক লীগের ‘কৃষক সমাবেশে’ তিনি এ প্রশ্ন করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিকে জিজ্ঞেস করতে চাই— ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম কই ‘ আলটিমেটাম ভুয়া, এক দফা ভুয়া, বিএনপি হচ্ছে ভুয়া। ৩২ দল ভুয়া, আন্দোলন ভুয়া, ক্ষমতা দখল ভুয়া, ভুয়া দল।

বিএনপি নেতারা শেখ হাসিনাকে কবরস্থানে পাঠাতে চায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, সেদিন আর বেশি দূরে নয়, বিএনপির রাজনীতি কবরস্থানে যাবে। কবরস্থানে যাওয়ার সময় এসেছে। বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, মিটিং করতে গেলে সরকারের অনুমতি নিতে হবে। অনুমতি না নিলে খবর আছে। পালাবার পথ পাবেন না। পালিয়ে যেতে হবে।

রাজপথ দখল করার অধিকার বিএনপির নেই বলে দাবি করেন তিনি বলেন, যারা রাস্তা দখল করবে, তাদের খবর আছে। আগুন নিয়ে আসলে আমরা হাত পুড়িয়ে দেবো। যারা ভাঙচুর করতে আসবে, তাদের হাত আমরা ভেঙে গুড়িয়ে দেবো।

বিএনপির হাতে দেশ ও দেশের গণতন্ত্রণ নিরাপদ নয় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের কাছে জনগণের স্বচ্ছ ভোট নিরাপদ নয়। বাংলাদেশের নিরাপত্তা, মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতার আদর্শ নিরাপদ নয়। এরা একাত্তরের বাংলাদেশ চায় না, চায় খুন আর সন্ত্রাসের বাংলাদেশ। বাংলাদেশে শেখ হাসিনা ছাড়া ক্ষমতার মঞ্চে গণতন্ত্র নিরাপদ নয়। আপনাদের নিরাপত্তা নিরাপদ নয়। ভাত-কাপড়ের ব্যবস্থা নিরাপদ নয়। শেখ হাসিনা আছেন বলেই বাংলাদেশ অনেক শান্তিতে আছে। একজন সৎ মানুষ রাজনীতিতে আছেন। ভালো মানুষ চোরচোট্টার দল বিএনপিতে নেই।

বিএনপি ক্ষমতায় আসলে বাংলাদেশের আলো নিভে যাবে দাবি করে তিনি বলেন, শতভাগ বিদ্যুৎ দিয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার। শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিয়ে এসেছেন। এ বাংলাদেশকে আমরা আর কোনও কালো হাতে ছেড়ে দেবো না, অন্ধকারে ফিরে যেতে দেবো না।

নেতাকর্মীদের প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, জোরদার খেলা হবে। সামনে নভেম্বর, তারপরে ডিসেম্বর, তারপরে জানুয়ারি, ফাইনাল খেলা, খেলা হবে। কৃষক ভাইয়ের খেলা হবে। প্রস্তুত হয়ে যান। নেত্রী আসছেন তিনি ডাক দেবেন। তিনি যখন ডাক দেবেন, রাস্তায় নেমে আসবেন।

আজকের সর্বশেষ সব খবর