বৃহস্পতিবার | ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সিগন্যাল না মেনেই রেলক্রসিংয়ে উঠে যায় মাইক্রোবাস!

প্রকাশিত : জুলাই ২৯, ২০২২




জার্নাল ডেস্ক ॥ চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের লেভেলক্রসিংয়ে ট্রেন ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে ১১ জন নিহত হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা এ দুর্ঘটনার জন্য মাইক্রোবাসটির চালককে দায়ি করেছে। তারা জানিয়েছে, সিগন্যাল অমান্য করে মাইক্রোবাসটি রেলক্রসিংয়ে উঠে পড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার (২৯ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে মিরসরাইয়ের খৈয়াছড়া রেলক্রসিংয়ে মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার সকালে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার আমান বাজার এলাকা থেকে একটি মাইক্রোবাসযোগে খৈয়াছড়া ঝরনা দেখতে আসেন মাইক্রোবাসের চালকসহ ১২ যুবক। ঝরনা দেখা শেষে ওইদিন বেলা পৌনে ১টার দিকে ফেরার পথে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা মহানগর প্রভাতী তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই ১১ জন নিহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে পূর্ব রেলের বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আনসার আলী সাংবাদিকদের জানান, ট্রেন আসায় গেটম্যান সাদ্দাম হোসেন বাঁশ ফেলে রাস্তা আটকে দিয়েছিলেন। কিন্তু মাইক্রোবাসটি বাঁশ ঠেলে ক্রসিংয়ে উঠে পড়ে। এতে মাইক্রোবাসটি ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে আটকে যায় এবং এই অবস্থায় মাইক্রোবাসটিকে প্রায় আধা কিলোমিটার পথ ছেঁচড়ে নিয়ে যায় ট্রেনটি।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার (মিরসরাই সার্কেল) লাবিব আব্দুল্লাহ ঘটনাস্থলে গিয়ে সাংবাদিকদের জানান, ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন মাইক্রোবাসে বহনকারী ১১ যুবক। আহত ১ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাস থেকে মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। তবে হতাহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে এটুকু জানা গেছে তারা সকলেই চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার আমান বাজার এলাকা থেকে ঝরনা দেখতে এসেছিলেন।

দুর্ঘটনার চার ঘণ্টা পর চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে লেভেলক্রসিং থেকে দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাসটি সরানো হয়েছে। এরপর ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলসড়কে ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

আজকের সর্বশেষ সব খবর