শুক্রবার | ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সিলেটে এসএসসিতে বসছে প্রায় সোয়া লাখ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৩, ২০২১




জার্নাল ডেস্ক ॥ দেশে করোনা পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক হয়নি। এই করোনা পরিস্থিতির কারণে একবছর বিরতি দিয়ে এবার সম্পূর্ণ নতুন নিয়মে রোববার (১৪ নভেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।

সিলেটে বোর্ডের অধীনে ১৪৬টি পরীক্ষাকেন্দ্রে এবছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন।

করোনার কারণে এবার তিন ঘণ্টার পরিবর্তে পরীক্ষা হবে দেড়ঘণ্টায়। বাংলা, গণিত, ইংরেজি বিষয়ের মতো আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা হচ্ছে না। শুধুমাত্র বিভাগভিত্তিক নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা দেবে শিক্ষার্থীরা। মাত্র তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা দিয়েই শিক্ষার্থীরা জীবনের তৃতীয় বড় পাবলিক পরীক্ষা শেষ করবে। এর আগে তারা দুটি পাবলিক পরীক্ষা প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা দিয়েছিল।

শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, কম সময়ে কম পরীক্ষায় এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শেষ হবে। এতে সবকিছুই নতুন মনে হবে শিক্ষার্থীদের কাছে। বাংলা, গণিত, ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা না হলেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এই বিষয়গুলোর ফলাফল চূড়ান্ত করা হবে। শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়ে এনসিটিবির নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বরের সঙ্গে ধারাবাহিক মূল্যায়নে প্রাপ্ত নম্বর অনলাইনে বোর্ডে পাঠাবে।

বোর্ড সূত্র জানায়- পরীক্ষার হলে ৫ ফুটের প্রতি বেঞ্চে বসানো হবে একজন শিক্ষার্থী। আর ৬ ফুটের বেঞ্চ হলে বসবে দুইজন। এছাড়া কেন্দ্রের বাইরে অভিভাবক জমায়েত এড়াতে থাকবে প্রশাসনিক ব্যবস্থা।

পরীক্ষা সংক্রান্ত নির্দেশনায় বলা হয়েছে কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নিতে হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষাকক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। উভয় অংশের মাঝে কোনো বিরতি থাকবে না। প্রতিটি পরীক্ষার জন্য দেড়ঘণ্টা করে সময় দেওয়া হবে।

চলতি বছরের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় সারা দেশে অংশ নিচ্ছে ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন পরীক্ষার্থী। মোট ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে এবারের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সিলেট বোর্ডের অধীনে এবার এসএসসি পরীক্ষায় বসবে ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন শিক্ষার্থী। সিলেটে বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা কেন্দ্র ১৪৬টি।

সিলেটে এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২১ হাজার ৬২৩ জন, মানবিক থেকে ৮৯ হাজার ৯৩৩ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ৯ হাজার ৫৫৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। সিলেট বোর্ডের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছেলে ৫৩ হাজার ৯৫৫ জন এবং মেয়ে ৬৭ হাজার ২০১ জন।

এ বিষয়ে সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর অরুন চন্দ্র পাল বলেন, ‘এবার ভিন্ন এক বাস্তবতায় এসএসসি পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে। আমাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো পরীক্ষা থেকে যাতে করোনা না ছড়ায়। সে লক্ষ্যে পর্যাপ্ত নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, সিলেটে এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন। কেন্দ্র রয়েছে ১৪৬টি কেন্দ্রগুলোর প্রতি হলে ৫ ফুটের ছোট বেঞ্চে একজন করে, এর চেয়ে বড় বেঞ্চে দুইজন করে বসবে।

প্রতিটি কেন্দ্রের সামনে আসন বিন্যাসের কাগজ লাগানো থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রে শুধু পরীক্ষার্থী প্রবেশ করবে। পরীক্ষার্থী প্রবেশের সময় সাবান, পানি ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা হবে। এছাড়া বাইরে অভিভাবকদের ভিড় করতে দেওয়া হবে না।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত এসএসসি পরীক্ষার সূচিতে দেখা গেছে, রোববার (১৪ নভেম্বর) পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) বিষয়ের পরীক্ষা দিয়ে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। এরপর ১৫ নভেম্বর সকালে বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা এবং বিকেলে হিসাব বিজ্ঞান, ১৬ নভেম্বর রসায়ন (তত্ত্বীয়), ১৮ নভেম্বর শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া (তত্ত্বীয়), ২১ নভেম্বর সকালে ভূগোল ও পরিবেশ এবং বিকেলে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, ২২ নভেম্বর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) ও জীব বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), ২৩ নভেম্বর সকালে পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং অর্থনীতি, বিকেলে ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের পরীক্ষা হবে।

সময়সূচি অনুযায়ী, সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা এবং বেলা ২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা, ২ শিফটে অনুষ্ঠিত হবে এবারের এসএসসি পরীক্ষা।

এদিকে পরীক্ষা চলাকালীন সিলেট নগরীর পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোর ২০০ গজের ভেতরে মিছিল-সমাবেশসহ কয়েকটি বিষয় নিষিদ্ধ করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)।

শনিবার (১৩ নভেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এসএমপির অধ্যাদেশ-২০০৬ সালের ধারা ২৯, ৩০, ৩১, ৩২ এর প্রদত্ত ক্ষমতাবলে পরীক্ষা কেন্দ্রের ২ শ গজের মধ্যে জনসমাবেশ, মিছিল, ঢাকঢোল বাজানো, লাউড স্পিকার ব্যবহার, অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, ইট পাথর, ইত্যাদি বহন, ব্যবহারসহ শান্তিশৃঙ্খলা ও জননিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ কোনো কাজ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া পরীক্ষা চলাকালীন প্রত্যেকটি কেন্দ্রকে অস্থায়ীভাবে সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করা হয়েছে।

এই আদেশ আগামী ১৪ নভেম্বর ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত পরীক্ষা চলাকালীন প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। এই আদেশ লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানায় এসএমপি।

সিলেটে এসএসসিতে বসছে প্রায় সোয়া লাখ শিক্ষার্থী

জার্নাল ডেস্ক ॥ দেশে করোনা পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক হয়নি। এই করোনা পরিস্থিতির কারণে একবছর বিরতি দিয়ে এবার সম্পূর্ণ নতুন নিয়মে রোববার (১৪ নভেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা।

সিলেটে বোর্ডের অধীনে ১৪৬টি পরীক্ষাকেন্দ্রে এবছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন।

করোনার কারণে এবার তিন ঘণ্টার পরিবর্তে পরীক্ষা হবে দেড়ঘণ্টায়। বাংলা, গণিত, ইংরেজি বিষয়ের মতো আবশ্যিক বিষয়ের পরীক্ষা হচ্ছে না। শুধুমাত্র বিভাগভিত্তিক নৈর্বাচনিক তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা দেবে শিক্ষার্থীরা। মাত্র তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা দিয়েই শিক্ষার্থীরা জীবনের তৃতীয় বড় পাবলিক পরীক্ষা শেষ করবে। এর আগে তারা দুটি পাবলিক পরীক্ষা প্রাথমিক সমাপনী ও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা দিয়েছিল।

শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, কম সময়ে কম পরীক্ষায় এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শেষ হবে। এতে সবকিছুই নতুন মনে হবে শিক্ষার্থীদের কাছে। বাংলা, গণিত, ইংরেজি বিষয়ের পরীক্ষা না হলেও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে এই বিষয়গুলোর ফলাফল চূড়ান্ত করা হবে। শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধুলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়ে এনসিটিবির নির্দেশনা অনুসারে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বরের সঙ্গে ধারাবাহিক মূল্যায়নে প্রাপ্ত নম্বর অনলাইনে বোর্ডে পাঠাবে।

বোর্ড সূত্র জানায়- পরীক্ষার হলে ৫ ফুটের প্রতি বেঞ্চে বসানো হবে একজন শিক্ষার্থী। আর ৬ ফুটের বেঞ্চ হলে বসবে দুইজন। এছাড়া কেন্দ্রের বাইরে অভিভাবক জমায়েত এড়াতে থাকবে প্রশাসনিক ব্যবস্থা।

পরীক্ষা সংক্রান্ত নির্দেশনায় বলা হয়েছে কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নিতে হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষাকক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। উভয় অংশের মাঝে কোনো বিরতি থাকবে না। প্রতিটি পরীক্ষার জন্য দেড়ঘণ্টা করে সময় দেওয়া হবে।

চলতি বছরের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় সারা দেশে অংশ নিচ্ছে ২২ লাখ ২৭ হাজার ১১৩ জন পরীক্ষার্থী। মোট ৩ হাজার ৬৭৯টি কেন্দ্রে এবারের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে সিলেট বোর্ডের অধীনে এবার এসএসসি পরীক্ষায় বসবে ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন শিক্ষার্থী। সিলেটে বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা কেন্দ্র ১৪৬টি।

সিলেটে এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২১ হাজার ৬২৩ জন, মানবিক থেকে ৮৯ হাজার ৯৩৩ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে ৯ হাজার ৫৫৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। সিলেট বোর্ডের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছেলে ৫৩ হাজার ৯৫৫ জন এবং মেয়ে ৬৭ হাজার ২০১ জন।

এ বিষয়ে সিলেট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর অরুন চন্দ্র পাল বলেন, ‘এবার ভিন্ন এক বাস্তবতায় এসএসসি পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে। আমাদের প্রধান চ্যালেঞ্জ হলো পরীক্ষা থেকে যাতে করোনা না ছড়ায়। সে লক্ষ্যে পর্যাপ্ত নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, সিলেটে এবার পরীক্ষার্থী ১ লাখ ২১ হাজার ১৫৬ জন। কেন্দ্র রয়েছে ১৪৬টি কেন্দ্রগুলোর প্রতি হলে ৫ ফুটের ছোট বেঞ্চে একজন করে, এর চেয়ে বড় বেঞ্চে দুইজন করে বসবে।

প্রতিটি কেন্দ্রের সামনে আসন বিন্যাসের কাগজ লাগানো থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রে শুধু পরীক্ষার্থী প্রবেশ করবে। পরীক্ষার্থী প্রবেশের সময় সাবান, পানি ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা হবে। এছাড়া বাইরে অভিভাবকদের ভিড় করতে দেওয়া হবে না।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত এসএসসি পরীক্ষার সূচিতে দেখা গেছে, রোববার (১৪ নভেম্বর) পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) বিষয়ের পরীক্ষা দিয়ে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। এরপর ১৫ নভেম্বর সকালে বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা এবং বিকেলে হিসাব বিজ্ঞান, ১৬ নভেম্বর রসায়ন (তত্ত্বীয়), ১৮ নভেম্বর শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া (তত্ত্বীয়), ২১ নভেম্বর সকালে ভূগোল ও পরিবেশ এবং বিকেলে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, ২২ নভেম্বর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) ও জীব বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), ২৩ নভেম্বর সকালে পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং অর্থনীতি, বিকেলে ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের পরীক্ষা হবে।

সময়সূচি অনুযায়ী, সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা এবং বেলা ২টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা, ২ শিফটে অনুষ্ঠিত হবে এবারের এসএসসি পরীক্ষা।

এদিকে পরীক্ষা চলাকালীন সিলেট নগরীর পরীক্ষাকেন্দ্রগুলোর ২০০ গজের ভেতরে মিছিল-সমাবেশসহ কয়েকটি বিষয় নিষিদ্ধ করেছে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ (এসএমপি)।

শনিবার (১৩ নভেম্বর) এক বিজ্ঞপ্তিতে এসএমপির অধ্যাদেশ-২০০৬ সালের ধারা ২৯, ৩০, ৩১, ৩২ এর প্রদত্ত ক্ষমতাবলে পরীক্ষা কেন্দ্রের ২ শ গজের মধ্যে জনসমাবেশ, মিছিল, ঢাকঢোল বাজানো, লাউড স্পিকার ব্যবহার, অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, ইট পাথর, ইত্যাদি বহন, ব্যবহারসহ শান্তিশৃঙ্খলা ও জননিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ কোনো কাজ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া পরীক্ষা চলাকালীন প্রত্যেকটি কেন্দ্রকে অস্থায়ীভাবে সংরক্ষিত এলাকা ঘোষণা করা হয়েছে।

এই আদেশ আগামী ১৪ নভেম্বর ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত পরীক্ষা চলাকালীন প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে। এই আদেশ লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানায় এসএমপি।

আজকের সর্বশেষ সব খবর