বুধবার | ১০ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হবিগঞ্জের কৃতি সাংবাদিক আশেকুন নবী’র “শেখ হাসিনা: দ্য এসেন্স অফ হার ওয়ার্ল্ড” নামে বই প্রকাশ

প্রকাশিত : ডিসেম্বর ২২, ২০২১




স্টাফ রিপোর্টার॥ লন্ডন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক প্রকাশনা সংস্থা ফিলামেন্ট পাবলিশিং লিমিটেড বাংলাদেশি সাংবাদিক হবিগঞ্জের কৃতি সন্তান আশেকুন নবী চৌধুরীর লেখা “শেখ হাসিনা: দ্য এসেন্স অফ হার ওয়ার্ল্ড” নামে একটি নতুন বই প্রকাশ করেছে। এই বইয়ে মোট পাঁচটি অধ্যায়ে লেখক শেখ হাসিনার চার দশকব্যাপী লেখাগুলোর বিস্তারিত পর্যালোচনা করে তাঁর রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের সমান্তরালে এক শক্তিশালী সাহিত্যিক সত্বার পরিচয় তুলে ধরেছেন এবং এই দুই সত্বার বিশ্বাস ও আদর্শেও একটি সুস্পষ্ট মেলবন্ধন দেখিয়েছেন। এছাড়া শেখ হাসিনার লেখায় জীবনের গভীর ও অর্থপূর্ণ যে দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিফলিত হয়েছে তা’ও এই বইয়ের অন্যতম পর্যালোচনার বিষয় হিসেবে উঠে এসেছে। উপরন্তু, সাহিত্য জগতে শেখ হাসিনার অভিযাত্রার একটি ধারাবাহিক চিত্র তাঁর প্রধান প্রধান লেখাগুলোর উদ্ধৃতিসহ তুলে ধরায় বইটি এবিষয়ে আরো গবেষণার সহায়ক হয়ে ওঠেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সম্প্রতি লন্ডনের ক্লারিজেস হোটেলে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন, যেখানে শেখ হাসিনার পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি তাঁর ঐতিহাসিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন। মোড়ক উন্মোচনের পর ইহসানুল করিম বলেন: “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের একটি রোল মডেল হিসেবে এক বিশেষ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হয়েছে। তাঁর লেখা নিয়ে গবেষনামূলক এই নতুন বইটিতে শেখ হাসিনার রাজনৈতিক সাফল্যের পাশাপাশি সাহিত্যিক সত্বার বলিষ্টতাও সুন্দরভাবে তুলে ধরা হয়েছে।”

ফিলামেন্ট পাবলিশিং-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস ডে প্রেস সচিব ইহসানুল করিমকে বইটির একটি বিশেষ সংস্করণ প্রদান করেন। এসময় লেখক আশেকুন নবী চৌধুরী, তার স্ত্রী সামছুন নাহার লুনা ও ডেপুটি প্রেস সচিব কে এম শাখাওয়াত মুন উপস্থিত ছিলেন। ক্রিস ডে বলেন: “এই বইয়ে লেখক শেখ হাসিনার চার দশকের লেখাগুলো বিশদভাবে বিশ্লেষণ করে এবং এসবের মূল বিষয়-বস্তুর ওপর আলোকপাত করে একজন সফল রাজনৈতিক নেতার মধ্যে একজন পরিপূর্ণ সাহিত্যিককে আবিস্কার করেছেন।”
বইটির প্রচ্ছদ এবং ভেতরের অঙ্গসজ্জা শেখ হাসিনার ছবি দিয়ে অলঙ্কৃত করা হয়েছে। ছবিগুলো তুলেছেন বাংলাদেশের প্রখ্যাত ফটোসাংবাদিক সাইফুল ইসলাম কল্লোল। অ্যামাজনের মাধ্যমে এবং যুক্তরাজ্যের বৃহত্তম অনলাইন বই বিক্রেতা ‘বুক ডিপোজিটরি’ থেকে বইটি বিশ্বব্যাপী পাওয়া যাচ্ছে।

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার মুছিকান্দি গ্রামের কৃতি সন্তান আশেকুন নবী চৌধুরীকে ২০১৮ সালের জুলাইয়ে লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের প্রেস মিনিস্টার পদে দুই বছরের জন্য নিয়োগ দেয় সরকার। পরে এই মেয়াদ আরও দুই বছরের জন্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। তিনি দেশের প্রথম ২৪/৭ নিউজ পোর্টাল বাংলাদেশইনফো.কম-এর বার্তা স¤পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময়ে ২০০১ সালে বাসস থেকে চাকরিচ্যুত সাংবাদিকদের মধ্যে আশেকুন নবী চৌধুরীও ছিলেন। হাইকোর্টের আদেশে তারা সবাই চাকরি ফিরে পান। ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলে অন্যদের সংগে তিনিও বাসসে পুনরায় যোগ দেন। পেশার ক্ষেত্রে তিনি দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও ওয়ার্কশপে অংশ নিয়েছেন। এজন্য তিনি বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ড, সুজারল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া ও ভারত।

আশেকুন নবী চৌধুরীর স্ত্রী সামছুন নাহার লুনা একজন গৃহবধূ। তাদের একমাত্র সন্তান মায়িশা তাশনিল কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ক্যালগেরি থেকে কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ স্নাতক করে সেখানেই কর্মরত আছেন।

আজকের সর্বশেষ সব খবর