রবিবার | ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হবিগঞ্জে আমন ধানের বাম্পার ফলন, লাভের আশায় চাষিরা

প্রকাশিত : নভেম্বর ২৮, ২০২২




সিরাজুল ইসলাম জীবন ॥ আবহাওয়া অনুকল থাকায় এবার হবিগঞ্জে রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষকরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন ধান কাটা, মাড়াই ও ঘরে তোলায়। বাজারে ভালো দাম পাওয়ার আশায় হাসি ফুটেছে তাদের মুখে।

হবিগঞ্জ জেলার ৯টি উপজেলার সবগুলোতেই রোপা আমন ধানের আবাদ হয়েছে। প্রায় চার মাস আবাদের পর এখন তাদের ব্যস্ততা ধান কাটা, মাড়াই ও ঘরে তোলা নিয়ে। ইতোমধ্যেই জেলার বানিয়াচং, আজমিরীগঞ্জ, মাধবপুর, চুনারুঘাট, নবীগঞ্জ, বাহুবল, সদর, শায়েস্তাগঞ্জ, ও লাখাই উপজেলার হাওরে ধান কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা।

হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, এবার হবিগঞ্জ জেলায় ৮০ হাজার ২শ ১০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ধান আবাদ হয়েছে ৮৮ হাজার ২শ ৫৮ হেক্টর জমিতে। যা গতবছর রোপা আমন ধানের আবাদ হয় ৮০ হাজার ২শ ৫০ হেক্টর জমিতে। এ মৌসুমে প্রতি হেক্টর জমি থেকে সোয়া ৩ মেট্রিক টন হিসেবে জেলায় ২ লাখ ৭৮ হাজার ১২ টন ধান উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে। মণের হিসাবে মোট ধান উৎপাদন হবে ৬৯ লাখ ৫০ হাজার ৩১৭ মণ।

এদিকে কৃষি বিভাগ আরও জানায় জেলার ২৪ লাখ ৩৫ হাজার ৬শ ৯২ জনগোষ্ঠীর খাদ্যের চাহিদা রয়েছে ৪ লাখ ১১ হাজার ১শ ৮৪ মেট্রিক টন চাল।

বানিয়াচং উপজেলার তারাসই গ্রামের কৃষক মোঃ কামাল উদ্দিন (সাবেক মেম্বার) জানান, ধানগাছের চেহারা দেখে বোঝা যাচ্ছে এবারে ভালো ফলন পাওয়া যেতে পারে। কোনো ধরণের প্রাকৃতিক দূর্যোগ না ঘটলে গত বছরের তুলনায় এবার ভালো ফলন ঘরে তুলতে পারবো।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো: নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, আমনের বাম্পার ফলন হয়েছে। এবছর জেলায় জমিতে রোপা আমন ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিলো ৮০ হাজার ২শ ১০ হেক্টর। তবে আবাদ হয়েছে ৮৮ হাজার ২শ ৫৮ হেক্টর জমিতে। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় এবারে লক্ষ্যমাত্রার চাইতেও ৮ হাজার ৪৮ হেক্টর বেশি রোপা আমন ধানের আবাদ হয়েছে। তিনি আরও জানান গত বছর সরকার কৃষকদের কাছ থেকে ১ হাজার ৮০ টাকা মণ দরে ধান কিনছে। এবার যেহেতু খরচ কিছুটা বেড়েছে তাই ১ হাজার ১শ টাকা মণ ধান কেনার সুপারিশ করা হয়েছে।

আজকের সর্বশেষ সব খবর