শুক্রবার | ২২শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হবিগঞ্জ শহরে পুকুর ভরাটের কারণে সৃষ্টি জলাবদ্ধতা

প্রকাশিত : জুলাই ১৮, ২০২১




স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ শহরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের সামনে পুকুর ভরাট করে পৌর শপিংমল নির্মাণের জন্য আর্থিক বরাদ্দের ঘোষণা বাতিল করে পুকুরটি পুনঃখনন ও সৌন্দর্যবর্ধনের দাবী জানিয়েছে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জ জেলা শাখা। রবিবার (১৮ জুলাই) হবিগঞ্জ পৌরসভা মেয়র বরাবরে ইমেইলের মাধ্যমে এই দাবী জানানো হয়।

বাপা হবিগঞ্জের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ ইকরামুল ওয়াদুদ ও সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল স্বাক্ষরিত আবেদনপত্রে বলা হয়, হবিগঞ্জ পৌর এলাকায় সাম্প্রতিক বছরগুলোতে জলাবদ্ধতার সমস্যা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে, যা ইতিমধ্যে মানবিক বিপর্যয়ে রূপ নিয়েছে। সামান্য বৃষ্টিপাত হলে শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাসমূহসহ বিস্তীর্ণ এলাকায় পানি জমে যায়। এর মূল কারণ হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে বেড়ে উঠা হবিগঞ্জ শহরের বারিপাত অঞ্চল অর্থাৎ পুকুর ও জলাশয়সমূহ দখল ও ভরাট হয়ে যাওয়া।

হবিগঞ্জের পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং নজির সুপার মার্কেটের সামনে পুকুরটি টাউন মডেল পুকুর নামে পরিচিত। বিগত এক যুগেরও বেশি সময় ধরে অস্থায়ী ট্রাকস্ট্যান্ড, উভয় সড়কের সংযোগ সড়ক নির্মাণ এবং পুরাতন কাপড়ের দোকান স্থাপনের মাধ্যমে পুকুরটি অবৈধ দখল প্রক্রিয়া শুরু হয়।

এই কৌশলগত বারিপাত অঞ্চলটি সঙ্কুচিত হবার সাথে সাথে পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে শুরু করে সার্কিট হাউস এর সামনে রাস্তায় বৃষ্টি হলেই পানি জমতে শুরু করে। বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জের ব্যাপক জলাবদ্ধতা নিরসনে অন্যান্য পুকুরসহ পুরাতন খোয়াই নদী পুনরুদ্ধারের পাশাপাশি এই পুকুরটি পুনরুদ্ধারের দাবী দীর্ঘদিন যাবত করে আসছে।

পৌরসভার দখল ও ভরাট হয়ে যাওয়া অন্যান্য পুকুর ও পুরাতন খোয়াই নদী পুনরুদ্ধারে দ্রুত ও কার্যকর পদক্ষেপের প্রয়োজনীয়তা গুরুত্বের সাথে উল্লেখ করে বাপা এর পক্ষ থেকে বলা হয়, আমরা জানতে পেরেছি- সদ্য ঘোষিত হবিগঞ্জ পৌরসভার বাজেটে উল্লেখিত পুকুরে পৌর শপিং মল নির্মাণের জন্য আর্থিক বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

জলাবদ্ধতা নিরসনে হবিগঞ্জের পুকুরসমুহ এবং পুরাতন খোয়াই নদী রক্ষায় আপনার নির্বাচনী ওয়াদা থাকা সত্ত্বেও হবিগঞ্জ পৌরসভার পক্ষ থেকে পুকুরটি অবৈধ দখলের হাত থেকে পুনরুদ্ধার না করে বহুতল শপিং মল নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করায় আমার বিস্মিত। বরং পুকুরটি পুনরুদ্ধার, পুনঃখনন ও দৃষ্টিনন্দন করার মাধ্যমে হবিগঞ্জবাসীর নাগরিক সুবিধায় একে সম্পৃক্ত করা এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সার্কিট হাউস রোর্ডকে জলাবদ্ধতামুক্ত করার জরুরী প্রয়োজন।

এতে ভুগর্ভস্থ পানির স্তর অবনমন ঠেকানোর জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা অনুযায়ী সরকার বাংলাদেশের যে কোনো পৌর এলাকার পুকুর সংরক্ষণের যে লিখিত নির্দেশনা পূর্বে দিয়েছেন, তা বাস্তবায়ন করা উচিত।

উল্লেখ করা প্রয়োজন গতবছরও হবিগঞ্জ পৌরসভা উল্লেখিত পুকুর ভরাট করে ভবন নির্মাণের জন্য পৌরসভার বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়। ২০২০ সালের ৫ জুলাই বাজেট থেকে বরাদ্দ বাতিলের জন্য হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র, জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় বরাবরে আমরা আবেদন জানাই।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে পুকুরটি খননসহ সংরক্ষণ করার প্রয়াজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

কিন্তু প্রায় একবছর হয়ে গেলেও মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ বাস্তবায়ন না করে উল্টো পুকুর ভরাটের জন্য বরাদ্দ রাখায় আমরা বিস্মিত? আমরা হবিগঞ্জ পৌরসভার বাজেটে উল্লেখিত পুকুরে পৌর শপিংমল নির্মাণের জন্য আর্থিক বরাদ্দের প্রতিবাদ জানাই এবং নিম্নলিখিত গুরুত্বপূর্র্ণ পদক্ষেপসমূহ গ্রহণের জন্য আপনাকে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।

অবিলম্বে বাতিল করতে হবে পৌর শপিংমল নির্মাণের জন্য আর্থিক বরাদ্দের ঘোষণা। টাউন মডেলের পুকুর থেকে সকল অবৈধ দখল উচ্ছেদ করতে হবে। সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী ও সংস্থাসমূহের প্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে একটি সুবিবেচিত নকশা প্রণয়নের মাধ্যমে পুকুরটি দৃষ্টিনন্দন করে নাগরিক সুবিধার সাথে সম্পৃক্ত করতে হবে।

টাউন মডেল পুকুরসহ পৌরসভার দখল ও ভরাট হয়ে যাওয়া অন্যান্য পুকুর, পুরাতন খোয়াই নদী পুনরুদ্ধারে হবিগঞ্জের জলাবদ্ধতা নিরসনসহ পরিবেশ-প্রতিবেশ রক্ষায় অংশগ্রহণমূলক ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। হবিগঞ্জ পৌরসভার জন্য প্রণয়ন করতে হবে একটি সমন্বিত মাস্টারপ্ল্যান।

এই বিভাগের আরো নিউজ

মাধবপুরে ভোক্তা অধিকার আইনে জরিমানা
খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির দোয়া মাহফিল
রাতে ঢাকায় এলো চীনের আরও অর্ধকোটি টিকা
অন্য ধর্মের মানুষকে সুরক্ষা নিশ্চিতের শিক্ষা দেয় ইসলাম: এমপি আবু জাহির
হবিগঞ্জে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (ভিডিওসহ)
আজকের সর্বশেষ সব খবর