শিরোনাম
  প্রেমের টানে সাদুল্যাপুর থেকে এক মাসেই ২৩ নারী উধাও       দুই সন্তানের গলায় ছুরি চালিয়ে বাবার আত্মহত্যার চেষ্টা       সুন্দরী মেয়ে দেখলেই তুলে নিয়ে যাচ্ছে ছাত্রলীগ: রিজভী       হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মুরাদের পিতার ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন       তেঘরিয়া ইউনিয়নে সরকারি সহায়তা বিতরণ করলেন এমপি আবু জাহির       মানবাধিকার প্রতিবেদন তৈরিতে রাজধানীতে সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ       মাধবপুর বিউটি পার্লারে ৪ নারীর উপর হামলা, থানায় অভিযোগ       মেঘলা আকাশের চিত্রে যেন চিরচেনা আশ্বিনের রূপ হারিয়ে গেছে!       ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতারকৃত ইউপি সদস্য রজব আলীর জামিন না মঞ্জুর       হবিগঞ্জে ওলামাদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত    


রামমন্দিরের পূজা স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টে মামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে করোনার মধ্যেই শুরু হচ্ছে অযোধ্যায় বিতর্কিত রামমন্দির নির্মাণকাজ। তিথি দেখে ঠিক হয়েছে ৫ আগস্ট হবে ভূমিপূজা। ৪০ কেজি রুপার ইট দিয়ে মন্দির নির্মাণের কাজ উদ্বোধন করবেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের।

তবে মহামারির মধ্যে এমন জাকজমকপূর্ণভাবে রামমন্দিরের ভূমিপুজো হলে তা কভিড-১৯ সংক্রান্ত সরকারি গাইডলাইনকে লঙ্ঘন করবে এমন দাবিতে এই অনুষ্ঠান স্থগিত রাখার জন্য এলাহাবাদ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন দিল্লির এক সাংবাদিক। সাকেত গোখলে নামের ওই সাংবাদিক বৃহস্পতিবার এই বিষয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেছেন।

আদালতে জমা দেওয়া হলফনামায় উল্লেখ করা হয়েছে, করোনার সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে নানা পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। সবাইকে ‘আনলক ২.০’-এর গাইডলাইন মানতে বলছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারগুলো। এই অবস্থার মধ্যে রামমন্দিরের ভূমিপুজো হলে সরকারি নির্দেশ ভাঙা হবে। ওই অনুষ্ঠানের জন্য অযোধ্যায় প্রচুর মানুষের সমাগম হবে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ-সহ প্রচুর বিশিষ্ট মানুষ সেখানে উপস্থিত থাকবেন। এর ফলে কেন্দ্র ও রাজ্যের জারি করা নিয়মেরই লঙ্ঘন করা হবে। যা ভয়াবহ এই মহামারির সময়ে কোনোভাবেই কাম্য নয়। সবদিক খতিয়ে দেখে আদালত এই বিষয়ে স্থগিতাদেশ জারি করুক।

গত বছর সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায় দানের পরই রামমন্দির তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছিল। রামের বিগ্রহ গোটা ভারত ঘোরানো হয়েছে। সারা দেশ থেকে ভক্তরা ভিত গাঁথার ইঁট পাঠিয়েছেন। কুম্ভমেলায় সাধুদের অনুমতিও নেওয়া হয়েছে। এরপরই ৫ আগস্ট দুপুর সোয়া বারোটায় ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের দিনক্ষণ ঠিক হয়েছে।

তিনদিন ধরে চলবে রীতি-রেওয়াজ। জমকালো ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে করোনা আবহে মাত্র ২০০ জন অনুষ্ঠানে উপস্থিতি থাকতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। তাদের মধ্যে ১৫০ জনই আমন্ত্রিত ভিআইপি।

একদিকে যেমন প্রতিটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে ভিতপুজোয় হাজির থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হবে. তেমনই বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানী, মুরলী মনোহর যোশি, উমা ভারতী ও বিনয় কাটিয়ারদেরও আমন্ত্রণ জানানো হবে। ভূমিপুজোয় হাজির থাকতে পারেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতও।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন