শুক্রবার | ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হবিগঞ্জে গণপ্রকৌশল দিবস ও আইডিইবি’র ৫১তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৯, ২০২১




স্টাফ রির্পোটার ॥ “সম্প্রীতির সমৃদ্ধ জাতি গঠনে আধুনিক জ্ঞান ও কর্মশক্তিতে বলীয়ান শিক্ষা” এই প্রতিপাদ্য বিষয়ের আলোকে হবিগঞ্জে গণপ্রকৌশল দিবস ও আইডিইবি’র গৌরবোজ্জ্বল ৫১তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী পালন করা হয়। সকাল ১০টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে প্রযুক্তিগত জ্ঞান বিজ্ঞানে দক্ষতার বিকল্প নাই। রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এবং দেশের অর্থনৈতিক চালিকা শক্তিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রাকৃতিক সম্পদের ব্যবহার আরো বাড়াতে হবে। সবুজ পৃথিবী এবং পরিবেশের জন্য প্রকৌশলীদের আরো এগিয়ে আসতে হবে।

আইডিইবি জেলা সভাপতি প্রকৌশলী প্রদীপ কান্তি রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া, আইডিইবি সহ-সভাপতি সুভাষ চন্দ্র চক্রবর্তী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মনসুর রশীদ কাজল। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা প্রকল্প বাস্থবায়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহান, প্রকৌশলী আব্দুল কুদ্দস শামীম, ডিপ্লেমা ইঞ্জিনিয়ার নুরুল আমীন প্রমুখ।

জেলা সভাপতি প্রকৌশলী প্রদীপ কান্তি রায় তার বক্তব্যে বলেন, সারা দেশে ৯ লক্ষ আইডিইবি সদস্য রয়েছেন, এর মধ্যে ৫ লক্ষ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার রয়েছেন, যারা দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। করোনাকালীন সময়ে আইডিইবি সকল ডিপ্লোমা প্রকৌশলী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মাঠ পর্যায়ে কাজ করেছেন। তাছাড়া প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছেন যে, মাঠ পর্যায়ে উন্নয়নের ৮৫% কাজ ডিপ্লেমা ইঞ্জিনিয়ারাই বাস্তবায়ন করে থাকেন। প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ পালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে কোরআন তেলাওয়াত করেন শাহাদাত হোসেন এবং গীতা পাঠ করেন প্রাণ কান্ত দাশ।

আলোচনা সভা শেষে পায়রা উড়িয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শোভা যাত্রার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক ইসরাত জাহান। এরপর বণার্ঢ্য আয়োজনে শহরে এক শোভা যাত্রা করা হয়।

আজকের সর্বশেষ সব খবর