শনিবার | ২৩শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

হবিগঞ্জের হাওরে ধান কাটলেন কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত : এপ্রিল ২৫, ২০২১




স্টাফ রিপোর্টার॥ আবিদ মিয়া। হবিগঞ্জ শহরের উমেদনগর এলাকার দরিদ্র কৃষক। বানিয়াচং উপজেলার কালারডোবা হাফরার হাওরে দেড় বিঘা জমিতে আবাদ করেন বোরো ধান। মাঠে ধান পেকে গেলেও শ্রমিক সংকটে তা কাটতে পারছিলেন না। আবার স্থানীয় শ্রমিকের মজুরীও বেশী।

ধান কাটার চিন্তায় যখন তিনি বিভোর তখন তার কথা হয় জেলা কৃষকলীগ সভাপতি হুমায়ুনক কবির রেজার সাথে। হুমায়ুন কবির রেজা তাকে চিন্তা না করে রবিবার সকালে তার ধান কাটার ব্যবস্থা করবেন বলে আশ্বাস দেন। কিছুটা দ্বিধা দ্বন্ধে কৃষক আবিদ মিয়া রবিবার সকালে হাওরে গিয়ে যখন অপেক্ষা করছেন তখনই সেখানে বড় বড় গাড়ী আসতে থাকে। গাড়ী থেকে নামেন পোষাক পড়া অনেক ভদ্র লোক। এর মাঝে আছেন কয়েকজন নারী। তারা গাড়ী থেকে নেমে সোজা চলে যান তার জমিতে। শহুরে পোষাক ভুলে তারা হাতে তুলে নেন কাচি। পরে সবাই মিলে মুহুর্তের মাঝেই তার জমির ধান কেটে দেন। পারিশ্রমিক ছাড়াই ধান কেটে দেয়ায় আনন্দের সীমা নেই কৃষক আবিদ মিয়ার। যারা তার ধান কেটে দেন সেই নামগুলো শুনলে যে কেউ বিষ্মিত হবেন। কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সভাপতি সমীরন চন্দ্র চন্দ, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীমা শাহারিয়ার এমপি, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি হুমায়ুন কবির রেজা, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ-সভাপতি দেওয়ান জয়নাল আবেদীন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক ড. হাবিবুর রহমান মোল্লা, দপ্তর সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জহির উদ্দিন মিলন সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দই সেখানে ধান কেটেছিলেন। মূলত জেলা কৃষকলীগের ধান কাটা উৎসব উদ্বোধন হয়েছে আবিদ মিয়ার জমিতে।

শুধু আবিদ মিয়াই নয়। হাওরে যতদিন ধান কাটা শেষ না হবে ততদিনই কৃষকদের পাশে থাকার প্রত্যয় ঘোষণা করেছেন কৃষকলীগের নেতৃবৃন্দ।

কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সভাপতি সমীরন চন্দ্র চন্দ ও সাধারন সম্পাদক এডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বোরো ধান কাটতে কৃষকদের যাতে শ্রমিক সংকট না হয় তার জন্য সারাদেশে কৃষকলীগের উদ্যোগে ধান কাটা উৎসব কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। যতদিন মাঠে ফসল থাকবে ততদিন কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা মাঠে থেকেই কৃষকদেরকে সহযোগিতা করবেন।কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা মাঠে থেকেই কৃষকদেরকে সহযোগিতা করবেন। এই করোনাকালে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বোরো ধান ঘরে উঠানো নিশ্চিত করতে হবে দেশের স্বার্থে।

তারা আরও বলেন,জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে ধানকাটা কর্মসূচি আজ কৃষকলীগ উৎসবে পরিনত করেছে। বাংলাদেশ কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা কৃষকদের ধান কাটছে, সেই ধান মাড়াই ঝাড়াই শেষে মাথায় করে কৃষকের গোলায় তুলে দিচ্ছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষককের পাশে থেকে কৃষকদের জন্য সুখে-দুঃখে কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা কাজ করবে এমন কৃষকলীগ-ই দেখতে চেয়েছিলেন।কৃষককলীগের এই ধান কাটা কর্মসূচি পুরো মৌসুম জুড়ে অব্যাহত থাকবে।

জেলা কৃষকলীগ সভাপতি হুমায়ুন কবির রেজা জানান, আগাম বন্যা ও শ্রমিক সংকটের কারনে কৃষকদের ধান তুলতে সমস্যা না হয় তার জন্য জেলার সর্বত্র কৃষকলীগের নেতাকর্মীরা কৃষকদের ধান কাটায় সহযোগিতা করবেন।

 

এই বিভাগের আরো নিউজ

হবিগঞ্জে শুভসংঘকে শক্তিশালী সংগঠনে রুপ দেয়ার প্রত্যয়
খালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির দোয়া মাহফিল
অন্য ধর্মের মানুষকে সুরক্ষা নিশ্চিতের শিক্ষা দেয় ইসলাম: এমপি আবু জাহির
হবিগঞ্জে যথাযথ মর্যাদায় পালিত হয়েছে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (ভিডিওসহ)
হবিগঞ্জে সনাতনধর্মী হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করলেন জেলা প্রশাসক
আজকের সর্বশেষ সব খবর